অভাবের সংসারে মানবিকতার ছবি

অভাবের সংসারে মানবিকতার ছবি

চেন্নাই: কোনও রকমে নিজের জন্য একবেলা খাবার জুটছে, তবুও কুকুদের দু’বেলা খাইয়ে মানবিকতার নজির গড়লেন মীনা। এইরকম মানুষ আজও বেঁচে আছেন। ঘটনাটি চেন্নাই-এর।।

জানা গিয়েছে, মীনা নামের এক মহিলা পরিচারিকার কাজ করেন। তাঁর আপন বলতে কেউ নেই। ২১ বছর ধরে পোষা কুকুরদের সঙ্গেই থাকেন মীনা। তাঁর নিজের আপন বলতে কেউ যদি থেকে থাকে তাঁরা হল এই কুকুরগুলি। তাঁর ১৩টি পোষা কুকুর আছে। প্রতিটিকেই তিনি রাস্তা থেকেই তুলে এনে নিজের কাছে রেখেছেন। নিজের সন্তানের মত ভালোবেসে আগলে রেখেছেন এই কুকুরগুলিকে।

নিজের পেটে একবেলা খাবার জুটলেও পোষা কুকুগুলিকে ঠিক দু’বেলা করে খাওয়াচ্ছেন মীনা। দুটি ঘরে থাকে সবাই মিলে। একেই অভাবের সংসার, তার মধ্যে শুরু হয়েছে লকডাউন। এর ফলে কাজ হারিয়েছেন মীনা।

এই দুঃসময় কেউ এসে পাশে দাঁড়াননি। যাঁদের বাড়িতে এত বছর ধরে কাজ করেন মীনা, তাঁরা কেউ একবারও খবর নেননি। এক মাসের মাইনে অগ্রিম চাইতে গিয়েছিলেন মীনা, কয়েকজন দিলেও বেশি ভাগ লোকই দেননি। অ্যাডভান্স হিসাবে যে টাকা তিনি পেয়েছেন তা দিয়ে ১৩টি পোষ্যের জন্য খাবার কিনে রেখেছেন মীনা।

মীনা জানিয়েছেন, ‘আমি অত খেতে ভালোবাসি না। যা পাই আমি আমার পোষ্যদের সঙ্গে ভাগ করেনি। তবে এখন লকডাউন। কাজ নেই, তাই বেশি ভাগ দিন একবেলা খাই। ওরা দুবেলা খায়, এটাই আমার শান্তি। আমি রাস্তার অনেক কুকুরকে খেতে দিই রোজ। তবে এখন আর চালাতে পারছি না। সব কিছু আগের মত না হলে ওদের কি করে খেতে দেব’।

খবর শেয়ার করুন, আর হোন সচেতন ভারতবাসী
Tags:,

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *